সন্তানকে বুকের দুধ পান করানো মায়েদের কী ধরনের খাবার প্রয়োজন?

মা হওয়ার পর সন্তানকে বুকের দুধ খাওয়ানোর আগ্রহ থাকে প্রতিটি মায়ের। কিন্তু অনেক সময় দেখা যায়, মায়ের বুকে দুধ কম থাকে। ফলে সন্তানের পুষ্টির চাহিদা পূরণ হয় না।

আজ আমি শেয়ার করবো কি কি খাবার খেলে মায়ের বুকের দুধ বাড়ে। 

১) তরল খাবারঃ

প্রচুর পরিমাণে পানি পান করা স্তন্যদানকারী মায়ের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। প্রতিদিন কমপক্ষে ১০-১২ গ্লাস পানি পান করা উচিত।

এছাড়াও দুধ, ডাবের পানি, স্যুপ, ফলের রস, শরবত, ইত্যাদি তরল খাবার বুকের দুধ বৃদ্ধিতে সাহায্য করে।

২) পুষ্টিকর খাবারঃ

মাছ:

রুই, কাতলা, মৃগেল, ইলিশ, চিংড়ি, ইত্যাদি মাছে প্রচুর পরিমাণে ওমেগা-৩ ফ্যাটি অ্যাসিড থাকে যা বুকের দুধের উৎপাদন বৃদ্ধি করে।

মাংস:

মুরগির মাংস, খাসির মাংস, গরুর মাংস, ইত্যাদি মাংসে প্রোটিন, আয়রন, এবং ভিটামিন বি১২ থাকে যা মায়ের শরীরে শক্তি যোগায় এবং বুকের দুধ বৃদ্ধিতে সাহায্য করে।

ডিম:

ডিম প্রোটিনের একটি ভালো উৎস। প্রতিদিন একটি করে ডিম খেলে বুকের দুধ বৃদ্ধি পায়।

ডাল:

মুগ ডাল, মসুর ডাল, ছোলা, বিউলির ডাল, ইত্যাদি ডালে প্রোটিন, ফাইবার, এবং আয়রন থাকে যা বুকের দুধ বৃদ্ধিতে সাহায্য করে।

শাকসবজি:

৭ দিনে ১০ কেজি ওজন কমানোর উপায়

পালং শাক, লাউ শাক, পুঁই শাক, ঢেঁড়স শাক, ইত্যাদি শাকসবজিতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন এবং খনিজ পদার্থ থাকে যা বুকের দুধ বৃদ্ধিতে সাহায্য করে।

ফলমূল:

আপেল খাওয়ার উপকারিতা (3)

পেঁপে, কলা, আপেল, আঙ্গুর, খেজুর, ইত্যাদি ফলমূলে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন, খনিজ পদার্থ, এবং ফাইবার থাকে যা বুকের দুধ বৃদ্ধিতে সাহায্য করে।

৩) বাদাম এবং বীজ জাতীয় খাবারঃ

এগুলি প্রোটিন এবং প্রয়োজনীয় মিনারেল যেমন আয়রন, জিঙ্ক, ক্যালসিয়াম এবং স্বাস্থ্যকর ফ্যাটের একটি উচ্চ উৎস।